মনীষাসংবাদ

হযরত আল্লামা মুফতী মুজাহিদ উদ্দিন চৌধুরী দুবাগী ছাহেবের ইন্তেকাল | সংক্ষিপ্ত জীবনাল্লেখ্য

বিভিন্ন সংগঠনের শোক প্রকাশ

ব্রিটেনের অন্যতম প্রবীণ আলেম দ্বীন, বহু গ্রন্থ প্রণেতা, বিশিষ্ট বুযুর্গ ও ইসলামী চিন্তাবিদ, লন্ডনের রেডব্রীজ এলাকার বাসিন্দা হযরত আল্লামা মুফতি মুজাহিদ উদ্দিন চৌধুরী দুবাগী শুক্রবার ১০ জুলাই জুমুআর পূর্বে বার্ধক্যজনিত রোগে এসেক্স এর স্থানীয় একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। তিনি তাঁর কর্ম জীবন এর একটা বড় অংশ ব্রিটেনের লেস্টার শহরে কাটিয়েছেন বলে তিনি লেস্টারের ছাব নামেও সমধিক পরিচিত ছিলেন।

সংক্ষিপ্ত জীবনাল্লেখ্যঃ

হযরত আল্লামা মুফতী মুজাহিদ উদ্দীন চৌধুরী দুবাগী ছাহেব ১৯২৯ সালের ২রা ফেব্রুয়ারি সিলেটের বিয়ানিবাজার থানার দুবাগ গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম মোঃ আপ্তাব আলী চৌধুরী এবং মাতা মরহুমা বিবিজান খাতুন চৌধুরী। তাঁর মাতা একজন তাপসী মহিলা ছিলেন। একটি বিশেষ ঘটনার মধ্য দিয়ে জনাব দুবাগী ছাহেবের বাল্যকালে তাঁর মায়ের ইন্তেকাল হয়। আল্লামা মুজাহিদ উদ্দীন চৌধুরী ‍দুবাগী ছাহেব বাল্যকালে কঠিন কলেরা রোগে আক্রান্ত হয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় উপনীত হন। বিভিন্ন চিকিৎসায় কোন উন্নতি না হওয়ায় তাঁর মা গলা পানিতে নেমে আল্লাহর দরবারে নিজের হায়াতের পরিবর্তে ছেলের হায়াত ভিক্ষা চাইতে লাগলেন। পানি থেকে উঠে আসার পরেই তিনি কলেরায় আক্রান্ত হন এবং তাঁর রোগ বৃদ্ধি পেতে থাকে। অপরদিকে বালক দুবাগী ছাহেবের রোগ ক্রমশঃ উপশম হতে লাগল। অবশেষে মাতা আদরের ছেলেকে স্বীয় জীবন উৎসর্গ করে ইহধাম ত্যাগ করেন।

আল্লামা মুজাহিদ উদ্দীন চৌধুরী দুবাগী ছাহেব

আল্লামা মুজাহিদ উদ্দীন চৌধুরী দুবাগী ছাহেব গাছবাড়ী আলীয়া মাদ্রাসায় ফাযিল পর্যন্ত অধ্যয়ন করেন এবং ১৯৬২ সালে সিলেট সরকারি আলীয়া মাদরাসা থেকে কৃতিত্বের সাথে কামিল উত্তীর্ণ হন। ১৯৭৮ সালে স্থায়ীভাবে ব্রিটেনে আসার পূর্ব পর্যন্ত দেশে বিভিন্ন মসজিদ ও মাদরাসার খিদমতে নিয়োজিত ছিলেন। তন্মধ্যে বিয়ানীবাজার উপজেলার মেওয়া কুদছিয়া মাদরাসা, দাসউরা দাখিল মাদরাসা, নবীগন্জ থানার তাহিরপুর ইত্তেফাকীয়া মাদরাসা, জকিগন্জ থানার আটগ্রাম আমজদিয়া মাদরাসা, মৌলভীবাজার জেলার মুকিমপুর আলীয়া মাদরাসা ও শ্রীমংগল আনোয়ারুল উলুম আলীয়া মাদরাসা এবং ঐতিহ্যবাহী সৎপুর আলীয়া মাদরাসায় সিনিয়র শিক্ষক ও মাদ্রাসা প্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত ওলীয়ে কামিল হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (রহ) এর অন্যতম খলিফা বিশিষ্ট এই আলেমে দ্বীন বয়ান ও লিখনীর মাধ্যমে দ্বীনের খেদমতে তাঁর সারাটা জীবন অতিবাহিত করেছেন। তিনি লাতিফিয়া উলামা সোসাইটি ইউকের সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং আনজুমানে আল ইসলাহ ইউকে ও লাতিফিয়া কারী সোসাইটি ইউকের উপদেষ্টা ছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ব্রিটেনের লেস্টার শহরের দারুস সালাম মসজিদের ইমাম ও খতীব ছিলেন এবং মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত লন্ডনের নিউক্রস জামে মসজিদের খতীব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। দ্বীনি বিষয়ের একজন সুবক্তা ও বিতার্কিক হিসেবেও তাঁর যথেষ্ট পরিচিতি ছিল। দেশে বিদেশে তিনি বহু মসজিদ, মাদরাসা ও খানেকা প্রতিষ্ঠায় সম্পৃক্ত থেকে দ্বীনি খেদমত আনজাম দিয়েছেন।

তিনি বহু দেশ সফর করেছেন এবং আরবী, উর্দু ও ফার্সি ভাষায় তাঁর অগাধ পান্ডিত্য ছিল। তিনি বাংলা ও উর্দু ভাষায় বহু গ্রন্থ রচনা করেছেন। তাঁর রচিত কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ বিভিন্ন সময়ে প্রকাশিত হয়েছে। তার মধ্যেঃ ১) মানাছুল মুফতী (উর্দু), (২) আল মাসাইলুন্নাদিরাহ, (৩) এক নজরে হজ ও যিয়ারত, (৪) এতিম প্রসঙ্গে, (৫) পুণ্যের দিশারী, (৬) ফাতওয়ায়ে মুজাহিদিয়া, (৭) ফাতেহা ও কবর যিয়ারতের মাসাইল, (৮) সুন্নাত ও নফল নামাজের জরুরি মাসাইল, (৯) দোয়ার মাহাত্ম্য, (১০) মানাছুল মুফতীর বঙ্গানুবাদ, (১১) বিবিধ মাসাইল, (১২) কদম বুছির তথ্য, (১৩) জানাজার নামাজের পর দোয়া করা মুস্তাহাব, (১৪) শবে-কদরের তাৎপর্য, (১৫) ফাদায়েলে শবে-বরাত, (১৬) শিফায়ে রূহ, (১৭) প্রশ্নউত্তর, (১৮) মীলাদে বেনযীর প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য।

তাঁর তিন ছেলে ও এক মেয়ে। তাঁর বড় ছেলে ব্রিকলেন জামে মসজিদের সাবেক ইমাম ও খতীব হযরত মাওলানা জিল্লুর রহমান চৌধুরী। আশা করা হচ্ছে, রোববার ১২ জুলাই বাদ জোহর তাঁর জানাযার নামাজ ব্রিকলেন জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। তবে পরবর্তীতে তা নিশ্চিত করে জানানো হবে।

বিভিন্ন সংগঠনের শোক প্রকাশঃ

হযরত আল্লামা মুফতী মুজাহিদ উদ্দীন চৌধুরী দুবাগী ছাহেবের ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছেন আনজুমানে আল ইসলাহ ইউকের প্রেসিডেন্ট হযরত আল্লামা আব্দুল জলিল, ভাইস প্রেসিডেন্ট হযরত মাওলানা ছাদ উদ্দীন সিদ্দিকী, মুহাদ্দিস মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা ফখরুল হাসান রুতবাহ, লাতিফিয়া ক্বারি সোসাইটি ইউকের প্রেসিডেন্ট হযরত মাওলানা মুফতী ইলিয়াস হোসাইন, সেক্রেটারি হযরত মাওলানা মুফতি আশরাফুর রহমান, লাতিফিয়া উলামা সোসাইটি ইউকের প্রেসিডেন্ট হযরত মাওলানা শেহাব উদ্দিন, সেক্রেটারি মাওলানা ফরিদ আহমদ চৌধুরী, দারুল হাদীস লাতিফিয়ার প্রিন্সিপাল হযরত মাওলানা মুহাম্মদ হাসান চৌধুরী ফুলতলী, সেক্রেটারি জনাব বদরুল ইসলামসহ বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। তাঁরা জনাব দুবাগী ছাহেবের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের জন্য মাগফিরাত ও জান্নাতে উচ্চ মাকাম কামনা করেছেন। তাঁরা বলেন, মরহুমের ইন্তেকালে ব্রিটেনের মুসলিম কমিউনিটি একজন বিদগ্ধ বুযুর্গ আলেম ও অভিভাবককে হারালো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *